22 C
Bangladesh
Sunday, December 5, 2021
Google search engine

সর্বশেষ পোস্ট

ভেলাবাড়ী ইউপি নির্বাচনে পুনরায় নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী চেয়ারম্যান রুবেল

তাজুল ইসলাম সারিয়াকান্দি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলার ১২নং ভেলাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পুনরায় দলীয় প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশা করে নৌকার মাঝি হতে চান বর্তমান চেয়ারম্যান মো. রুবেল উদ্দীন। তিনি ২০১৬ সালের ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে বিজয় লাভ করেন।

এবারের নির্বাচনে নিজেকে প্রার্থী হিসেবে জানান দিতে মানুষের দ্বারে দ্বারে, পাড়ায়-মহল্লায়, চায়ের দোকান কিংবা জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে চলছে দোয়া কামনা। ১৪.৭৪ বর্গ কিলোমিটারের আয়তনে ও প্রায় ১৩ হাজার জনসংখ্যা অধ্যুষিত এই ইউনিয়নে সেবা দিয়ে যেতে কখনো অলসতাবোধ করেননি তিনি।

তাই আবারো জনগনের ভালোবাসা ও দোয়া চান এই প্রার্থী। রুবেল উদ্দীন ১৯৭৮ সালে ইউনিয়নের জোড়গাছা গ্রামের মধ্যপাড়া গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি মরহুম হবিবর রহমান প্রাং ও মোছাঃ হামেতুন বেগমের কনিষ্ঠ পুত্র।

সংসার জীবনে তিনি একমাত্র কন্যা সন্তান, স্ত্রী ও মা’কে নিয়ে গ্রামের বাড়িতে অন্য দশজন সাধারণ মানুষের মতো জীবনযাপন করে আসছেন। শিক্ষা জীবনে তিনি ১৯৯৩ইং সালে জোড়গাছা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে রাজশাহী বিভাগের অধীনে মানবিক বিভাগ থেকে ১ম বিভাগে কৃতকার্য হন।

একই বোর্ডের অধীনে ১৯৯৫ সালে বগুড়া ক্যান্ট পাবলিক পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ
থেকে মানবিক বিভাগ থেকে ২য় বিভাগ নিয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উর্ত্তীণ হন।

এর মীরপুর সরকারী কলেজ থেকে ডিগ্রী কলেজ ¯œাতক পাশ করেন। ১৯৯৬ সাল হতে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত মীরপুর সরকারি কলেজ, ঢাকা ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। ২০০৫ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত জোড়গাছা সাংগঠনিক ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন এবং ২০১৪ইং থেকে ২০১৭ইং সাল পর্যন্ত সৎ ও নিষ্ঠার সাথে একই সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

এর পর ২০১৮ ইং সাল হতে অদ্যবধী মূল দলের সদস্য হয়ে দলের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন এবং দলকে সুসংগঠিত করে আসছেন। এছাড়াও তিনি জোড়গাছা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের এ্যাডহক কমিটির সভাপতি, জোড়গাছা ফাজিল মাদ্রাসার সভাপতি এবং সর্বশেষ পারভেলাবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়েল সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।


২০১৬ সালে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক রুবেল উদ্দীন দায়িত্ব গ্রহণের পর ইউনিয়নের সকল প্রকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, সামাজিক অবকাঠামো সহ রাস্তা ঘাট এর ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। তিনি খানা জরিপের মাধ্যমে ভিজিডি, ভিজিএফ, বয়স্ক, বিধাবা, স্বামী পরিত্যাক্তা, স্বামী নিগৃহীতা, প্রতিবন্ধী ভাতা সহ বিভিন্ন উন্নয়নমূল কাজ করেছেন তিনি।

একান্ত সাক্ষাৎকারে রুবেল উদ্দীন বলেন, ব্যক্তি জীবনে তিনি অন্য দশজন মানুষের মতোই সাধারণবাবে মানুষ জনগণের কথা ভেবে নিজের আরাম আয়েশকে বিসর্জন দিয়ে বিগত সময়ে নিজের সাধ্যমত জনগনের সেবা দিয়ে যেতে চেষ্টা করেছি। নিজের একমাত্র মেয়েকে শহরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি করায়নি।

মেয়ের স্বপ্ন ছিল সে শহরে পড়াশুনা করবে কিন্তু তার আবদার ও স্বপ্নটুকুও বিসর্জন দিয়েছি শুধুমাত্র জনগণের সেবা করার জন্য। তাকে বলেছিলাম জনগণের সেবা করা যেতে কথা আনন্দের তা তুমি বড় হলে বুঝতে পারবে মা। ও কথা শুনে মেয়েটি সাদরে আমার জনসেবা করার পথকে আরও সুগম করে দেয়। সত্যিকার ভাবে যদি জনগনের সেবা করেই থাকি তাহলে আমার এলাকার জনগন যোগ্য প্রার্থী বিবেচনা করে আমাকে আবারো সেবা করার দায়িত্ব প্রদান করবে।

জনগনের ভোটের মাধ্যমে আবারো নির্বাচিত করে আমার উপর দায়িত্ব অর্পন করা হলে সকল দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করে যাব ইনশাআল্লাহ্।

লেটেস্ট পোষ্ট

ফেয়ার & লেডি

spot_img

অবশ্যই পড়ুন

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.