22 C
Bangladesh
Friday, December 3, 2021
Google search engine

সর্বশেষ পোস্ট

নিয়ামতপুরে সাংবাদিক ডিবি পুলিশ সেজে চাঁদাবাজির অভিযোগ

ইমরান ইসলাম,নিয়ামতপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ ভুয়া ডিবি পুলিশ অফিসার সেজে দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ভুক্তভোগী।

মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর বেলা ৩টায় ভুক্তভোগী স্বশরীরে থানায় উপস্থিত হয়ে এ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৩ অক্টোবর বেলা ১টার সময় চন্দননগর ইউনিয়নের ছাতড়া বিলের রাস্তার মাঝামাঝি জায়গায়।

থানায় লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চন্দননগর ইউনিয়নের শিয়ালীপাড়ার গ্রামের আশরাফুল ইসলামের ছেলে রেহেল রানা মহাদেবপুর উপজেলার চান্দাশ গ্রাম থেকে বাঁশ কেটে ট্রলিযোগে আসার পথে বালাহৈর গ্রামের মৃত- নুরুদ্দিন কারীর ছেলে দৈনিক আজকের পত্রিকার নিয়ামতপুর প্রতিনিধি সিরাজুল ইসলাম, আরেক সাংবাদিক আমইল গ্রামের আকতার হোসেনের ছেলে আলমগীর হোসেন ও তাদের সঙ্গী মহাদেবপুর উপজেলার কাঞ্চন গ্রামের মোতালেব হোসেন (পিতা- অজ্ঞাত) পথ রুদ্ধ করে ভূয়া ডিবি পুলিশ অফিসার সেজে রেহেল রানাকে জোরপূর্বক মাদক ব্যবসায়ী সাজিয়ে  চাঁদা আদায় করে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী রেহেল রানা এ প্রতিবেদককে বলেন, আমি যখন বাঁশ কেটে আসছিলাম তখন ঐ তিনজন আমার পথ রুদ্ধ করে আমার লুঙ্গী ও মানি ব্যাগের ভেতর জোরপূর্বক মাদক ঢুকিয়ে দিয়ে ভিডিও করে চাঁদা দাবী করে।

তারা আমাকে হুমকি দিয়ে বলে, ৫০ হাজার টাকা না দিলে আমাকে ক্রস ফায়ারে মেরে ফেলবে। আমি ভয়ে আমার বাড়ীতে ফোন দিলে আমার পরিবারের সদস্যরা অনেক কষ্ট করে ধার দেনা করে কোন রকমে ২০ হাজার টাকা সংগ্রহ করে। এর মধ্যে তারা আমাকে জোর করে ছাতড়া বিলের রাস্তার মাঝামাঝি থেকে গোরাই গ্রামের করবলা নাম স্থানে নিয়ে আসে।

আমার পরিবারের সদস্য ২০ হাজার টাকা নিয়ে আমার গ্রামের চাচাতো ভাই ইমনের হাতে দিলে সে আলমগীরের হাতে দেয়। তারা টাকা পেয়ে আমাকে কাউকে না বলার হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়।এ বিষয়ে আলমগীর হোসেন বলেন, অভিযোগটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আমি সেদিন বাবার চিকিৎসার জন্য রাজশাহীতে ছিলাম।

আমি এসে শুনেছি এরকম একটি ঘটনা ঘটেছে। কে বা কাহার ঘটিয়েছে তা আমার জানা নেই। আমার ইমেজ নষ্ট করার জন্য উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ দিয়েছে।সাংবাদিক সিরাজুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনার সাথে আমার কোন সম্পর্ক নেই।

অভিযোগকারী নিজেই একজন মাদক ব্যবসায়ী। সে মাদক ব্যবসা করে এবং সেবন করে। এ বিষয়ে নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ন কবির বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

লেটেস্ট পোষ্ট

ফেয়ার & লেডি

spot_img

অবশ্যই পড়ুন

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.